Covid 19 বা Corona Effect প্রায় প্রত্যেক মানুষের Normal জীবনধারার  প্রচুর পরিবর্তন করে দিয়েছে। এবং প্রত্যেকে কিছুটা ভয়ে বা বাধ্য হয়ে এই ঘর বন্দি ব্যপারটা মেনে নিয়েছেন বা নিতে হয়েছে। সম্প্রতিক অতীতে যখন কার্গিল যুদ্ধ চলছিল তখনও কিন্তু এখানে আমাদের মত সাধারণ মানুষের জীবন মোটামুটি Normal ই ছিল। তাহলে কি এই ধরনের বিপদ ভবিষ্যতে যুদ্ধের থেকে ভয়ঙ্কর রূপ নেবে? তা হলে কি এবার বাঙ্কার বুজিয়ে দিয়ে, Mig, সুখই, অগ্নি সব ছেড়ে রাসায়নিক অস্ত্র বা এই ধরনের বিপদের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করতে হবে? জানি না।

বড়লোকের কাঁধে ভর করে যে রোগ এ দেশে এল তাতে সর্ব প্রথমে সবথেকে বেশি সরাসরি বিপদে পরল গরীব সাধারণ মানুষ।আর এর Delayed Effect এ বিপদে পরবে তার পর Week মধ্যবিত্ত শ্রেণী। আমাদের কাছে কত খবর আসছে কত মানুষ April মাসে পুরো মাইনে নাকি পাবেন না, অনেকে এ বলছেন April মাসেও যদি ঠিক এরকম Lockdown অবস্থা চলে তাদের Company নাকি Salary দিতে পারবে না বলে দিয়েছে।অনেকে আবার এই ভয়ও খাচ্ছেন যে পরিস্থিতি সামলে গেলে তাদের Job টা যে তারা ফিরে পাবেনই তার কোন নিশ্চয়তা  নাকি নেই। ভাবলে ভয় হয়।RBI তো তিন মাসের Loan EMI কাটা হবে না বলেছেন।

আমরা যখন Emergency fund রাখার  কথা কাউকে বলি তখন দেখেছি Almost সবাই ভাবেন Emergency situation মানে Medical Emergency এবং তারা সাথে সাথে বলেন আমার Mediclaim আছে বা এই ধরনের কিছু কথা।যা ভাবতে পারছিনা, যা অনুমান করতে পারছিনা সেটার সামনে পরলে যাতে আর্থিক ভাবে সামলাতে পারি তার জন্যই Emergency fund। অবশ্যই একটা Emergency fund সব সমস্যার সমাধান অবশ্যই করে দেবে না, কিন্তু সমস্যাটার সঙ্গে লড়াই করতে Help তো  করবে। একজন ব্যক্তি যিনি ভাবছেন তার job নাও থাকতে পারে, যদি তার অন্তত 6 মাসেরও একটা Emergency provision থাকে সেই অবস্থায় আবার Job খোঁজার যে মানসিকতা আর EMI এর চাপ, সংসার চালানর চাপ, ছেলে মেয়ের পড়াশোনার খরচের চাপ সব কিছু মাথায় নিয়ে Job খোজা কি এক হবে? ভাবলে ভাল হয়। আমরা roy’s FINANCE আমাদের Company র 6 মাসের Emergency ফান্ড Already করে রেখেছি, কিন্তু এই ঘটনা আমাদের শিখিয়েছে 6 মাস নয় আমাদের 1 বছরের Minimum Emergency fund এর পর আমাদের ready করতেই হবে। কারন অনেক Family (Including our TEAM as well as You) আমাদের এই Decission এর অপর নির্ভরশীল। 

এই পরিস্থিতি আমাদের roy”s FINANCE TEAM কে অনেক কিছু ভাবিয়েছে এবং আমরাও বেশ কিছু বিষয়ে নিজেদের আরও change করার পরিকল্পনা করেছি। যেমন আমরা অনেক আগেই আমাদের প্রত্যেকটি Transaction আপনাদের সামনাসামনি না হয়েই কিভাবে সেটাকে Successfully Execute করা যেতে পারে সেগুলো করে রেখেছি। যে কারণে আজ সমস্ত Mutual Fund Office বন্ধ থাকা অবস্থাতেও এমনকি আমাদের নিজেদের Office বন্ধ থাকা অবস্থাতেও আমরা আপনাদের প্রত্যেককে আপনাদের প্রয়োজনীয় সমস্ত Service দিতে পারছি। আমাদের TEAM কিন্তু তাদের নিজেদের ঘরে বসেই আপনাদের সমস্ত Requirement Fulfill করার জন্য Ready। 

এই সময় আমরা roy’s FINANCE TEAM এর প্রত্যেক TEAM Member প্রত্যেকদিন 2 ঘণ্টা নিজেদের মধ্যে Phone Concall, Video Meeting, এগুলোর মাধ্যমে নিজেদের আর ও Update এবং Upgrade করছি। ভবিষ্যতে এই Video Meeting এর সাহায্য নিয়ে আমরা কিভাবে আপনাদেরকেও আরও Better way তে Serve করতে পারি তার জন্য System আমরা Ready করছি। আজ যেকোনো ব্যক্তি পৃথিবীর যে প্রান্তেই থাকুন একদম Initial stage থেকে  শুরু করে তার Required Investment তাঁর সাথে দেখা না করেই কিভাবে Start করা যায় সে System আমাদের Ready। আমরা এই পরিস্থিতির কারণে অনেক কিছু ভাবতে বাধ্য হয়েছি কারণ We are commited to give you SAFETY & SECURITY। 

Need আর Want এর চিরন্তন লড়াইয়ে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে Want ই জিতে যাচ্ছে, এটাই দেখছি। যার ফলে বহু মানুষ অনেক  সময় হয়ত ভুলেই যাচ্ছেন জীবনের জন্য জীবিকা না জীবীকার জন্য জীবন? Family আগে না Work আগে? Success বস্তুটা কি? এই পরিস্থিতিতে ঠাণ্ডা মাথায় ভাববার বোধহয় একটু সময় এসেছে। আমি দেখেছি অনেক মানুষ একটা job পেয়ে যাওয়ার পর আর নিজেদের Update এবং Upgrade করার তাগিদ বা প্রয়োজনীয়তা হারিয়ে ফেলেন এবং সময়ের অজুহাতের আড়ালে নিজেকে আড়াল করেন। পরে তাকে ওই জীবিকা Modern Slave তৈরি করে ফেলে।

আজ অনেকেই বিদেশে বসে বুঝতে পারছেন যে এই দেশে নেই হয়ত অনেক কিছু, কিন্তু আছেও  অনেক কিছু সেগুলো অনেকে আজ Phone এ বলছেন। আমাদেরই একজন Investor এর বয়স জনিত কারণে এই গত কাল জীবনাবসান ঘটে গেল, তার এক ছেলে, এক মেয়ে, দুজনেই USA তে থাকে, তারা বাবাকে শেষ দেখাটাও দেখল Video র মাধ্যমে। সব কাজ করছে আত্নিয় পরিজন। অথচ আজ কত জন মানুষ Networking Socialising কে গুরুত্ব দেন। নিজের হাতের Mobile Phone র দিকেইতো  তাকিয়ে পথ চলেন। 

কীজন্য আমায় পৃথিবীতে আনা হল? আর আমি কিসের জন্য দৌড়চ্ছি? Sorry, Very sorry, আমার ভাবনাটা just share করলাম, আপনাদের মতামত পেলে ভাল হয়।